আকবর সারা বিশ্বের গর্ব : মেয়র মোস্তফা

প্রকাশিত: ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২০ প্রিন্ট করুন

মহানগর বার্তা ডেস্কঃ এক আকবর ভারতবর্ষ জয় করে মোঘল সমরাজ্য বিস্তার করেছিলেন আর এক আকবর করেছেন বিশ্ব জয়। ১৬ কোটি মানুষের নয়নের মনি ১৯ বছরের এই টকবকে এই তরুন। বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরনের নাম আকবর আলী।

মাত্র ছয় বছর বয়সে টেপটেনিস বল দিয়ে ক্রিকেটে মজেছিলেন এই আকবর। ষষ্ট শ্রেনীতে পড়ার সময় ওসিম মেমোরিয়ার একাডেমিতে ক্রিকেটের হাতে ঘড়ী।২০১২ সালে ভর্তি হয় বাংলাদেশ ক্রিড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। এর পর শুধুই এগিয়ে যাওয়ার গল্প, বিকেএসপির বয়সভিত্তিক দও গুলো সাফল্য থেকে বিসিবি অনূর্ধ ১৭ দলে সুযোগ পান আকবর আলী। সেই তখন থেকেই নেতৃত্ব দেন । ২০১৬ সালে এসএসসি’র সময় চলছিলো প্রথম বিভাগ লীগ। ক্রিকেট ও পড়াশুনা দুটোই সামলেছেন সমান ভাবে। তারেই ধারাবাহিকতায় সুযোগ পান অনূর্ধ ১৯ দলে। গেলো বছর জানুয়ারিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের আগে হটাৎ করে নেতৃত্বের ভার ওঠে আকবর আলরি কধে। অধিনায়কের দায়িত্ব পেয়ে আর পরিনত ইউকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান।

অধিনায়ক আকবর আলীর পরিসংখ্যান ২৮ ম্যাচে ২১ জয় ৪ পরাজয় টাই পরিত্যক্ত ১/৩।
১৭ ম্যাচে ১২ ইনিংস ৩৯৫ রান অপরাজিত ৮, গড় ৯৮.৭৫, ৫০/১০০ চারটি ও সবোচ্চ ৬৬ রান।

বাংলাদেশের ক্রিকেটার আকবর আলীকে গণসংবর্ধনা দেবে রংপুর সিটি কর্পোরেশন। এই তথ্য জানিয়েছে রসিক মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, আকবর শুধু রংপুরের গর্ব নয়, সারা বাংলাদেশের গর্ব, সারা বিশ্বের গর্ব। তার পথ ধরে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশের আগামী তারুণ্য।

মেয়র মোস্তফা বলেন, সারা পৃথিবীতে যে পেশায় দক্ষ তাকেই পৃষ্ঠপোষকতা দেয়া হয়। কিন্তু আমাদের দেশে সেটি দেয়া হয় না। আমি চাই আকবরকে যথাযথ সমস্ত পৃষ্ঠপোষকতা দেয়া হবে। এ ধরনের হাজারো আকবর আলি যেনো বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে শ্রেষ্ঠত্বের আসনে পরিচিত করতে পারে। আকবর আলীর নেতৃত্বে বিশ্বকাপ জয় এর বিরল ঘটনায় রংপুর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে তার পরিবার, প্রধানমন্ত্রী এবং দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান

আকবরের বাব-মোস্তফা বলেন, অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হলো। তিনি বলেন, চারবারের চ্যাম্পিয়নদের ডাকওয়ার্থ লুইসে ৩ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাস গড়লো আকবর আলীর দল। যুব বিশ্বকাপে ট্রফি হাতে নিলো নতুন চ্যাম্পিয়নরা। আর এই বিশ্বকাপে রংপুরের আকবর আলীর দল আরও এগিয়ে যাবে বলেন তার পিতা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের যে লড়াই সারাদেশের মানুষকে জাগিয়ে তুলছে। গত দুই বছরে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের লড়াইয়ে বাংলাদেশের হার সেটাই প্রমাণ করে।
আকবরের মা-শাহিদা বেগম জানান, এ জয় সারা বাংলাদেশের জয়। ছেলের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইলেন আকবরের মা। তিনি আরও বলেন, ছোট বেলা থেকে ক্রিটেকের উপর আকবরের আকর্ষণ ছিলে। অনেক কষ্টে করে সে অনেক দুর এগিয়েছে।

এদিকে আকবরের পরিবারকে অভিন্দন যানাতে অনেক মানুষ ছুটে গেছেন তার বাড়ীতে। এই জয়ে আনন্দ সারাদেশে।রংপুরের জম্মাপাড়ার মোস্তফার ছেলে আকবর আলী। ছোট বেলা থেকেই ক্রিকেট খেলার উপর মন ছিল তার। বাবা-মা-কখনেই খেলা খেলতে দিত না ছোট ছেলে আকবরকে। পালিয়ে পালিয়ে ক্রিকেট খেলতে আকবর। আজ তার বাবা-মা- বাংলার জয়ে আনন্দ ধরে রাখতে না পেরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।