গ্যাসের অবৈধ সংযোগে কোটি টাকা চাঁদা,নেপথ্যে স্থানীয় নেতারা।

প্রকাশিত: ১০:৩১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০ প্রিন্ট করুন

আফজাল হোসেন (নিজস্ব প্রতিবেদক)-  দেশ স্বাধীন হলেও স্বাধীন হয়নি রাস্ট্রের মালিক জনগন।

নেতারা যদিও গলা ফাটিয়ে সভা সেমিনারে বলে থাকেন সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, অন্যায়ের বিরোদ্ধে বলিষ্ট কন্ঠস্বর কিন্তু বাস্তবতা সম্পূর্ন ভিন্ন।

সম্প্রতি সরকার অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদের কঠোর অবস্থান নিলে কিছু কিছু জায়গায় অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়।তবে বেশীর ভাগ ঝুকিপূর্ন অবৈধ গ্যাস লাইন থেকে যায় ধরাছোঁয়ার বাইরে।

এর পেছনের কারন অনুসন্ধান করতে গিয়ে বেরিয়ে আসে থলের বিড়াল।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে জানা যায়,গাজীপুরের শ্রীপুরের প্রায় প্রতিটি জায়গায় স্থানীয় প্রভাবশালীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগীতায় এবং কিছু অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে অবাদে চলছে বিপদজনক ও অনিরাপদ ঝুকিপূর্ণ গ্যাস সংযোগ।

এবিষয়ে শ্রীপুর পৌরসভার নতুনবাজার এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি বলেন প্রথমে গ্যাস লাইন দেওয়ার কথা বলে প্রতি রাইজার ৫০ থেকে ৭০ হাজার টাকা নেওয়া হলো এবং বললো সংযোগ হলে বৈধতা দেওয়া হবে।

কিন্তু এখন চিত্র সম্পূ্র্ন ভিন্ন। এখন বলা হচ্ছে প্রতি মাসে চুলা প্রতি ৫০০ টাকা দিতে হবে দিলে প্রশাসন কিছু বলবেনা। আর ব্যতিক্রম হলে অবৈধ গ্যাস সংযোগের কারনে জেল জরিমানা করা হবে। তিনি বলেন এমতাবস্থায় আমরা বড় অসহায় একদিকে প্রতিমাসে কোন রশিদ ছাড়া হাজার হাজার টাকা চাঁদা দিচ্ছি অন্যদিকে আবার প্রশাসন অভিযান চালালে জেল জরিমানার ভয়েও আছি।

এ ব্যাপারে গাজীপুর তিতাস গ্যাসের উপব্যবস্থাপক প্রকৌঃসৈয়দ আবু সুফিয়ান বলেন,তিতাসের উচ্ছেদ অভিযান চলমান রয়েছে।যদি কেউ টাকার বিনিময়ে নতুন সংযোগ দেওয়ার চেষ্টা করে তবে তাদেরকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।