সম্মান আর সমতায় নারী, কারন তারাও মানুষ।

প্রকাশিত: ২:৪৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০২০ প্রিন্ট করুন

হাজারো কাজের ভীড়ে, নারীর কিছু কাজ আছে,যে কাজগুলো পৃথিবীর অনেকেই হয়তো করতে পারে, কিন্তু নারীর মতো করে করতে পারেনা। যেমন মা তার সন্তানকে যে ভাবে যত্নসহকারে লালন পালন করে, পৃথিবীর কোন বাবা পারবেনা তেমন করে। মায়ের মমতার কোন ভাগ হয়না। মা তো মা, তার তুলনা হয়না। ঘর সংসার সামলেও সংগ্রামী মায়েরা আরো বাহিরে পুরুষের মতোই কাজ করে, ছেলেমেয়ে লালন পালন করে। তবু অনেক পরিবারে ঐ মা যথাযোগ্য মর্যাদা ও সম্মান পায়না, তার কথার কোন মূল্যায়ন থাকেনা। তাকে তার অধিকার দেয়া হয়না।গ্রামে গঞ্জে এমন হাজারো নারী আছে, যারা বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে কাজের সাথে জড়িত, এগুলো কাজের বাইরে তারা ঘর গৃহস্থালির সকল কাজ করছে, ছেলেমেয়ে দেখাশুনা করছে, অনেকেই তবু প্রতি নিয়ত অবহেলিত, নিগৃহীত, লাঞ্চিত হচ্ছে। প্রতি রাতে স্বামী নামক কিছু পাষন্ডের করুন নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আমরা নারীরাই বুঝি আরেকটি নারীর কি কি সমস্যা, তবে দিন বদলাচ্ছে, নারী আজ প্রতিবাদ করতে শিখেছে, নিজেকে তৈরি করছে সুন্দর ভাবে, দক্ষ করে, নারী আর ঘরে বসে নির্যাতন সহ্য নয়, সেও তার পৃথিবীটাকে নিজের মতো করে সাজাচ্ছে বা চেষ্টা করছে। বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ প্রধান নারী, নারী ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি পেয়েছে, নারী শিক্ষার হার বেড়েছে, নারী কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তাই আর নারীকে অবহেলা বা নির্যাতন নয়, সম্মান দিন, সমতা দিন, ভালোবাসা দিন। নারী তার সর্বোচ্চ টা দিয়ে এই পরিবার ও সমাজ ও দেশটাকে ভালো রাখবে।।কারন তারাও মানুষ, তারাও সম্মান নিয়ে সমাজে বাঁচতে চায়, সমাজ ও জাতি গঠনে কাজ করে নিজেদের অস্তিত্বের সত্যতা দেখতে চায়।

বিশ্ব নারী দিবসে আমার এটাই চাওয়া ভালো থাকুক পৃথিবীর সকল নারী। নারী তোমায় সালাম।।

সাহিদা আক্তার স্বর্ণা ( সমাজকর্মী)
চেয়ারম্যান, সাকসেস কী ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ
ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শ্রীপুর উপজেলা ইয়ুথ ফোরাম।