সংকটকে কাজে লাগিয়ে হাসপাতালের ব্যবহৃত মাস্ক ও গ্লাভস বিক্রির অভিযোগে টঙ্গীতে আটক-২

প্রকাশিত: ১০:৩১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৮, ২০২০ প্রিন্ট করুন

আফজাল হোসেন (গাজীপুর)-করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক কাজে লাগিয়ে চড়া দামে ব্যবহৃত মাস্ক ও হ্যান্ড গ্ল্যাভস বিক্রির দায়েদুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ ।তবে এসবের মূলহোতা নাছির(৩৫) পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে।

নাছির গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার আব্দুল আলিমের বড় ছেলে । সে গত ১৫ বছর যাবৎ টঙ্গীতে বসবাস করে আসছে ।

জানা যায়, সে রাজধানীর উত্তরা, টঙ্গী ও গাজীপুরের সব কয়েটি হাসতাপালের ব্যবহার করে ফেলে দেওয়া মাস্ক মেয়াদ উত্তীর্ণ শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে আয়রন করে বাজারে বিক্রি করছে। এমন দৃশ্য দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমানে মাস্ক ও হ্যান্ড গ্ল্যাভস উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, নাছির নামের এক ব্যক্তি গত এক মাস যাবৎ হঠাৎ করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হলে সে বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে ব্যবহার হয়ে যাওয়া মাস্ক ও হ্যান্ড গ্যাভস সংগ্রহ করে ধুয়ে বাজারে চড়া দামে বিক্রি করছে।

স্থানীয় মো. কাশেম সিকদার বলেন, গত এক মাস ধরে হঠাৎ মাস্ক ও হ্যান্ড গ্ল্যাভস সংকট দেখা দিলে নাছির নামের এক ব্যক্তি এ ব্যবসা করে আসছে। হঠাৎ এ কালোবাজারি করে প্রচুর টাকার মালিক হয়ে গেছে নাছির।

টঙ্গী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শুভ মন্ডল জানায়, গত এক যাবৎ এমন ব্যবসা দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমানে রক্তমাখা মাস্ক ও হ্যান্ড গ্যাভস উদ্ধার করে। এ ঘটনার সাথে জরিত থাকার অপরাধে পুলিশ বাড়ির ম্যানেজার ও আয়রনম্যান সহ দু‘জন কে আটক করে। তবে, মূলহুতা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। মূলহুতাকে আটক করতে পুলিশ অভিযান করছে।

এ বিষয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার পরিদর্শক (ওসি অপারেশন) সুব্রত পোদ্দার জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দু‘জনকে আটক করা হয়েছে। তবে, ঘটনার সাথে জরিতদের আটক করতে অভিযান চলছে। এনিয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।