সখিপুরে বনের ভেতর ফেলে যাওয়া নারী করোনায় আক্রান্ত নন,তিনি মানসিক রোগী।

প্রকাশিত: ৬:৫৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২০ প্রিন্ট করুন

মহানগর বার্তা,টাঙ্গাইলঃ টাঙ্গাইলের সখীপুরে জঙ্গলে করোনা সন্দেহে ফেলে নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নয়। তিনি মূলত মানসিক প্রতিবন্ধী।

বুধবার বিকেলে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শাহীনুর আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শাহীনুর আলম জানান, ওই নারীর জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও গলা ব্যথা অবস্থায় গত মঙ্গলবার সকালে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। বুধবার তার ফলাফলে নেগেটিভ এসেছে।

গত সোমবার রাতে সখীপুর উপজেলার গজারিয়া ইউপির ইছাদিঘী গ্রামের এক জঙ্গল থেকে ওই নারীকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে ফেলে রেখে যায় তার স্বামী ও সন্তানেরা। পরে ওই নারীর কান্নার শব্দ শুনে বিষয়টি ইউএনওকে অবগত করা হয়।

ইউএনও আসমাউল হুসনা সোমবার রাত দেড়টার দিকে পুলিশ সদস্য ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীর পরিচয় জানেন।

ওই নারী শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার বাসিন্দা। তার স্বামী-সন্তান গাজীপুরের সালনায় পোশাক কারখানায় কাজ করেন। তার স্বামী-সন্তান আর স্বজনরা রাতে করোনা সন্দেহে তাকে জঙ্গলে ফেলে রেখে সকালে বাড়ি নিবে বলে আশ্বাস দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে রাতেই ঢাকায় হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।