মেগা নিউজের প্রধান সম্পাদক ও সম্পাদকসহ ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলায় আসকের উদ্বেগ

প্রকাশিত: ৬:৫৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৮, ২০২০ প্রিন্ট করুন

 

মো:শামীম উদ্দিন (ঈশ্বরদী প্রতিনিধি): মাদক, সন্ত্রাস, দূর্নীতি, হুমকিসহ নানা অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের জেরে’ জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল মেগা নিউজের ঈশ্বরদী মেগা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম পোর্টালের প্রধান সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুল আলিম, সম্পাদক রেজাউল করিম ফেরদৌস, নবযুগান্তর প্রতিনিধি ইয়াছিন শেখ এবং দৈনিক আজকের বাংলাদেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার সদরুল আইনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।
মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) আইন ও সালিশ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক মু. মুস্তাফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের জেরে অনলাইন নিউজপোর্টাল ঈশ্বরদী মেগা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম পোর্টালের প্রধান সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুল আলিম, সম্পাদক রেজাউল করিম ফেরদৌস, নবযুগান্তর প্রতিনিধি ইয়াছিন শেখ এবং দৈনিক আজকের বাংলাদেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার সদরুল আইনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে সাংবাদিকদের হুমকি, মারধর ও নানাভাবে হয়রানির অভিযোগ আসছে। আইন ও সালিশ কেন্দ্র এসব ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানাচ্ছে।
গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত ১৯ এপ্রিল মেগা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট কম পোর্টালে আটঘরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান তানভীর ইসলামের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে, এমন অভিযোগ করেছেন তিনি। ওই সংবাদে তিনি রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন হয়েছেন বলে উল্লেখ তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৯ ধারায় মামলা করে। বাদীর অভিযোগ, মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছে।
বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আসক অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে লক্ষ্য করছে, সাম্প্রতিক সময়ে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা কিংবা শারীরিকভাবে আঘাতসহ নানাভাবে হয়রানির ঘটনা ঘটছে। দুঃখজনকভাবে এসব ঘটনার প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে ক্ষমতাসীন দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বা এর সমর্থকরা জড়িত।
আসক অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে সংবিধান স্বীকৃত জনগণের তথ্য লাভের অধিকার এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিতের ওপর গুরুত্বারোপ করছে। এসব ঘটনা গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধের অপচেষ্টা, যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। সাংবাদিকরা যাতে নির্বিঘ্নে তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে পারে এমন পরিবেশ তৈরি এবং এসব ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দলীয় ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে আসক। পাশাপাশি দ্রুত মামলা প্রত্যাহারের আহ্বান জানাচ্ছে।