উত্তরায় যাত্রীবাহী বাসে আগুন

প্রকাশিত: ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০২৩ প্রিন্ট করুন

মহানগর বার্তা ডেস্ক : বিএনপির টানা তৃতীয় দিনের অবরোধ কর্মসূচি চলাকালে রাজধানীর উত্তরায় যাত্রীবাহী একটি বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় কোনো হতাহতের তথ্য এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) সকাল ৭টার দিকে উত্তরার আজমপুর এলাকার উড়ালসড়কের নিচে এই ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের দায়িত্বরত কর্মকর্তা রাশেদ বিন খালেদ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “পরিস্থান পরিবহন নামের একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। বাসে আগুন দেওয়ার তথ্য পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যায় ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট। তারা বাসটির আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে।”

বিএনপির ডাকা টানা তিন দিনের অবরোধের শেষ দিন আজ। গত দুই দিন অবরোধ চলাকালে দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, হামলা, ভাঙচুর, গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে সরকার পতনের এক দফা দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছে বিএনপি ও সমমনা দলগুলো। গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় মহাসমাবেশের ডাক দেয় বিএনপি। বিপুল জমায়েত হয় তাদের এই মহাসমাবেশে। সমাবেশ চলাকালে এক পর্যায়ে আওয়ামী লীগ ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয় বিএনপি নেতাকর্মীদের। মহাসমাবেশ পণ্ড হলে তারা হরতাল অবরোধ কর্মসূচিতে যায়।

গত রবিবার সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করে বিএনপি। এদিন সারাদেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের সংঘর্ষ বাধে। লালমনিরহাটে এক যুবলীগ নেতার মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এছাড়া বিপুল পরিমাণ বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গত ৩১ অক্টোবর শুরু হওয়া টানা অবরোধেও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নারায়ণগঞ্জে তিন পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে জখম করে বিএনপি নেতাকর্মীরা। অন্যদিকে কিশোরগঞ্জে ও সিলেটে পুলিশ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষে বিএনপির তিনজনের মৃত্যু হয়।

গত ৩১ অক্টোবর থেকে টানা তিন দিনের সড়ক, রেল, নৌপথসহ সর্বাত্মক অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। টানা তিন দিনের অবরোধ শেষে আজ আবার কর্মসূচি ঘোষণা করতে পারে বিএনপি।